surmavoice24.com
সিলেটশুক্রবার, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বিকাল ৩:১৭
আজকের সর্বশেষ সবখবর

নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার সুযোগ থাকছেনা


নভেম্বর ২২, ২০২৩ ৬:০১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে একটি আসনে একাধিক প্রার্থীকে মনোনয়ন দিতে পারবে রাজনৈতিক দলগুলো। দলীয়ভাবে একবার মনোনয়ন জমা দিলে আর স্বতন্ত্র হিসেবে নির্বাচন করতে পারবেন না কোনো প্রার্থী। মনোনয়ন প্রত্যাহারের আগে দল বা জোট যাকে চূড়ান্ত মনোনয়ন দেবে, কেবল তিনিই প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন। ওই আসনে দলের বা জোটের অন্য প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র স্বয়ংক্রিয়ভাবেই বাতিল হবে। এর ফলে দলীয়ভাবে মনোনয়ন জমাকারীদের কারও আর বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ার সুযোগ নেই। এ ক্ষেত্রে কেউ নির্বাচন করতে চাইলে আগে থেকেই দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে স্বতন্ত্র হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে। নির্বাচন কমিশন সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এর আগে সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের ক্ষমতা প্রার্থী বা তার এজেন্টের হাতেই ছিল। ফলে দল বা জোট কাউকে চূড়ান্ত মনোনয়ন না দিলেও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারতেন। কিন্তু বিগত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ সংশোধন করে ১২ ধারা ৩ এ(বি) এবং ১৬ ধারা (২)- তে রাজনৈতিক দলগুলোকে প্রার্থী চূড়ান্তকরণের এই ক্ষমতা দেওয়া হয়।

আরপিওর ১২ ধারার ৩এ (বি)-তে আগে ছিল, নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের পক্ষে সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক বা সমপর্যায়ের পদাধিকার স্বাক্ষরিত এই মর্মে একটি প্রত্যয়নপত্র যে, প্রার্থীকে ওই দলের পক্ষ থেকে মনোনয়ন প্রদান করা হয়েছে। তবে শর্ত থাকে যে, কোনো নিবন্ধিত দলের পক্ষ থেকে প্রাথমিকভাবে একাধিক প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া যাবে। একের অধিক প্রার্থীকে মনোনয়ন করা হলে মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের পূর্বেই চূড়ান্তভাবে একজন মনোনীত প্রার্থীর নাম রিটার্নিং অফিসারকে লিখিতভাবে জানাতে হবে। কিন্তু ২০১৩ সালে বিগত কমিশন এই ধারায় সংশোধনী আনে। বর্তমানে এই ধারায় উল্লেখ আছে, কোনো নিবন্ধিত দলের পক্ষ থেকে প্রাথমিকভাবে একাধিক প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া যাবে। একের অধিক প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হলে তা ১৬(২) ধারা অনুযায়ী কার্যকর হবে। ১৬(২) ধারায় বলা আছে, যদি কোনো আসনে একের অধিক প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়, তার মধ্যে থেকে একজনকে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আগেই চূড়ান্ত করতে হবে। তা নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বা সমপর্যায়ের কেউ লিখিতভাবে রিটার্নিং অফিসারকে জানাবেন। দলের অন্য মনোনীত প্রার্থীদের প্রার্থিতা স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল হয়ে যাবে।

তপশিল অনুযায়ী, আগামী ৩০ নভেম্বর মনোনয়ন দাখিলের শেষ সময়। এর মধ্যে রাজনৈতিক দলগুলো একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন দিতে পারবে। বাছাইকালে কারও প্রার্থিতা বাতিল হয়ে গেলেও অন্যদের মধ্যে থেকে ১৮ ডিসেম্বর প্রত্যাহারের আগে একজনকে চূড়ান্ত করার সুযোগ পাবে দলগুলো।

কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।